মাত্রাতিরিক্ত আবেগ জড়িয়ে রয়েছে বলে কোনো এভারেজ

মাত্রাতিরিক্ত আবেগ জড়িয়ে রয়েছে বলে কোনো এভারেজ টাইপের সিনেমাকে সন্দেহ ছাড়া ভালো – অসাধারণ বলাটা কী ঠিক? আজ এমনই একটি সিনেমা নিয়ে কথা বলবো যেই সিনেমাটি ততটা ভালো না হওয়া স্বত্তেও, সমালোচিত সিনেমা হওয়া স্বত্তেও আমার কাছে অনেক স্পেশাল শুধুমাত্র যখন প্রথমবার দেখেছিলাম সেই মুহূর্তটার জন্য।
সিনেমা দেখার ক্ষেত্রেও একজন দর্শকের রুচি সময় অনুযায়ী পরিবর্তন হয়। ২০১৪ সাল তখন আমি একেবারে বাচ্চাই ছিলাম ক্লাস ৪ এ মনে হয় পড়ি সেই সময়। সেই সময়টাতে ভারতীয় বাংলা সিনেমা বাদে অন্যকিছু খুব কমই দেখতাম। দেব, জীৎ, সোহম এদের রিমেক সিনেমাগুলোই বারবার রিপিট করে দেখা হতো তখন রিমেককে চুরি করা বলে মনে করতাম।

মাত্রাতিরিক্ত আবেগ জড়িয়েছে ‘অরুন্ধতী’

‘অরুন্ধতী’ সিনেমাটা ২০০৯ সালের তেলেগু ইন্ডাস্ট্রির একই নামের সিনেমা ‘অরুন্ধতী’র-ই রিমেক ছিল। যেখানে অনুষ্কা শেট্টি এবং সোনু সুদ ছিল লিড রোলে। অরজিনাল মুভিটি অনেক ভালো সিনেমা অনেকেই ভাববে তেলেগু সিনেমা বলে ভালো বলে দিচ্ছি এটা আপনাদের ভুল ধারণা আসলেই তেলেগুটা ভালো ছিল।
তেলেগু সিনেমাটির Imdb রেটিং ৮ এর কাছাকাছি ৭.৪ /১০ হয়তো। Imdb রেটিং এর ক্ষেত্রে যেমন দুটো সিনেমার মাঝে বিস্তর ফারাক তেমনি মুভি হিসেবেও দুইটির মাঝে অনেক তফাত রয়েছে ফ্রেম টু ফ্রেম রিমেক হওয়া স্বত্তেও।
অনেকে হরর সিনেমাতেও লজিক খুঁজবে এখন দাদা দয়া করে যা ইচ্ছে করুন তবে এমন টাইপের সিনেমাতে লজিক খুঁজবেন না৷ লজিক যদি বা দিকে যায় তাহলে এই সিনেমা দুটি যাবে ডান দিকে তাই কেউ যদি দেখতে চান তাহলে অরজিনাল কিংবা রিমেক যেই ভার্ষনই দেখুন লজিক খুজতে যাবেন না মাথায় প্রচুর আঘাত লাগবে।

যাইহোক যেই সিনেমা নিয়ে কথা বলছি সেটাতে আসি

আজ থেকে দুই আড়াই বছর আগে লাস্ট অরুন্ধতী সিনেমাটা দেখেছি মানে বাংলাটা। এত বছর পর আজ আবার দেখলাম তবে এবার টিভির স্ক্রিনে নয় মোবাইলের স্ক্রিনে এবং এখন সেই আড়াই বছর আগের রুচিটা আর নেই। তো বাংলার অরুন্ধতী তেলেগু সিনেমাটার তুলনায় কিছুটা ঝা চকচকে ছিল।
মুভি : অরুন্ধতী (২০১৪)
Imdb রেটিং : ৪.৮/১০
পরিচালক : সুজিত মন্ডল।
অভিনয়ে : কোয়েল মল্লিক, ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত, দেবশংকর হালদার, স্বাগতা মুখার্জী, দেবেশ রায়চৌধুরী, প্রমুখ
২০১৪ সালে বাংলা সিনেমাতে VFX এর কাজ বলতে ঘুষি দিয়ে আকাশ ভ্রমণ বাদ দিয়ে তেমন কিছু ছিল না সেই হিসেবে সময় এবং বাজেট অনুযায়ী বাংলার অরুন্ধতীতে যা VFX এর কাজ ছিল সেগুলো প্রসংশার দাবী রাখে। বলছিনা দারুণ কাজ তবে সময়টা ২০১৪ ইন্ডাস্ট্রি বাংলা সেই হিসেবে ভালো।
চিত্রনাট্য বলতে গেলে চিত্রনাট্যকার হয়তো কম্পিউটার ব্যবহার করে ফটোকপি করে ফেলেছিল। গল্প থেকে শুরু করে প্রত্যেকটা সিন ফ্রেম টু ফ্রেম কপি মানে পরিবর্তন বলতে কিছু নেই। গান,Background মিউজিক পর্যন্ত কপি ছিল। তবে হ্যা কপি হলেও গান এবং Background music বেশ ভালো লেগেছিল সেই সময় এবং এখনো Bgm টা বেশ লেগেছে।

ফ্রেম টু ফ্রেম রিমেক

গল্প, চিত্রনাট্য সবই যেহেতু ফ্রেম টু ফ্রেম রিমেক সেহেতু ক্রেডিট কোনো ভাবেই বাংলার অরুন্ধতীর মেকারদের দেব না। সবই যেহেতু এক তাই দেখার বিষয় ছিল চরিত্রগুলোতে অভিনয়শিল্পীরা কেমন করে। অনুষ্কার জায়গায় কোয়েল মল্লিক কিছু জায়গায় ঠিক ছিল কিন্তু কিছু কিছু সিনে এতটা বাজে ওভার এক্টিং করেছিল কোয়েল মানে কী বলবো।
অরজিনাল মুভিটা চকচকে ছিল না তবে অনুষ্কার অভিনয় চোখে লেগে থাকার মত ছিল কিন্তু বাংলাতে কিছু কিছু জায়গায় কোয়েল ভালো করলেও অনেক জায়গাতেই ওভার এক্টিং করে ফেলেছে। আরেকজন নাম না জানা মহানায়িকাকে নিয়ে কিছু না বললেই নয় অরুন্ধতীর অল্প বয়সের চরিত্রে একটি মেয়ে ছিল সত্যি বলছি দাদা একে দেখতে কিউট লাগছিলো বটে তবে অভিনয় আর ডায়লগ ডেলিভারি আপনাকে নাকে হাত দিতে বাধ্য করবে।
ভালো অভিনয় বলতে ভিলেন হিসেবে ইন্দ্রনীল অসাধারণ। অরজিনাল সিনেমাকে টক্কর দেবার মত এই একজনই ছিল। কোনো অংশে সোনু সুদ থেকে কম নয়।অভিনয় থেকে শুরু করে ডায়লগ ডেলিভারি দারুণ.. “বুলবুলি”। ভিলেন হিসেবে আপনাকে রাগিয়ে দিবে আর কী দরকার। ❤️

রিমেক হিসেবে এভারেজ

তাছাড়া ফকির বাবার চরিত্রটার প্রেমে পড়ে গিয়েছিলাম প্রথম দিকে চরিত্রটা বেশ ভালো করে গুছিয়ে ছিলেন তেলেগু সিনেমার মেকার্সরা। ফকির বাবার চরিত্রে দেবশংকর হালদারকে বেশ ভালোই লেগেছে। সব মিলিয়ে রিমেক হিসেবে এভারেজ
এবার ছোট করে বলে দিচ্ছি কেন এই সিনেমা আমার কাছে স্পেশাল। কারণটা খুবই সাধারণ আমি এই সিনেমা পরিবার নিয়ে দেখেছিলাম এবং সময়টা খুবই ভালো ছিল৷ পরিবার নিয়ে কখনো ভালো করে কিছু দেখিনি এটাই প্রথম সিনেমা ছিল যেটা আমি, মা এবং ছোট বোন মিলে একসাথে দেখেছিলাম এবং সেই সময় অনেক ভালো লেগেছিল। এবং এই সিনেমাটি দেখে ভয়ের কারণে সেই সময় অনেক মজার ঘটনা ঘটেছিল যেগুলো এখন খুবই মিস করি৷
ছোটবেলার প্রিয় সিনেমা এখন ফালতু মনে হয় কতটা পরিবর্তন হয়েছে রুচিতে৷ ছোটবেলার আবেগের সাথে জড়িত বলে কোনো সিনেমা বা সিরিজকে নিয়ে তর্ক করাটা ঠিক নয়। যাইহোক অরুন্ধতী আপনি দেখে থাকলে কেমন লেগেছিল জানাবেন। ভুলগুলো ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখার অনুরোধ রইলো। 🙏

Leave a Reply

Your email address will not be published.