মানবসভ্যতার ইতিহাসে সত্যিকারের ভয়ের কারণ ওর্ক কিংবা অন্ধকার নয়, বরং আমরা নিজেরাই

যারা গেম অফ থ্রোনস সিরিজ দেখননি কিংবা দেখার প্ল্যানে আছেন তারা যথাসম্ভব এই পোস্ট এড়িয়ে চলার চেষ্টা করবেন কেননা আগেই বলে দিচ্ছি এই পোস্টে অনেকগুলো স্পয়লার আছে যা আপনার পরবর্তীতে এই সিরিজ উপভোগ করাটা অনেকখানিই নষ্ট করে দিবে।
মূলত এই পোস্টে আমার গেম অফ থ্রোনস এর অভিজ্ঞতা আর তন্মধ্যে সেরা চারটি এপিসোডের ভালোলাগা শেয়ার করলাম। টিভি-সিনেমা জগতে ড্রামা-ফ্যান্টাসি জনরার এই সিরিজ নিঃসন্দেহে এক অনবেদ্য যোজন। তর্কসাপেক্ষে অনেকে সর্বকালের সেরা সিরিজ ও বলে থাকে অনেকে।

মানবসভ্যতার ইতিহাসে সত্যিকারের ভয়ের কারণ ওর্ক কিংবা অন্ধকার নয়, বরং আমরা নিজেরাই!

যাই হোক ভালোলাগা কিংবা সেরা বলাটা যার যার ব্যক্তিগত চয়েস অফ ভিউ। তবে ব্যক্তিগতভাবে আমি অবশ্যই এই সিরিজকে সবার উপরে রাখবো তার কারণ এই সিরিজের কমপ্লিটিলি। কি নেই এই সিরিজে?! এক কথায় একটা কমপ্লিট প্যাকেজ।
ভালো মন্দের দ্বন্দ্ব নিয়েই এই সিরিজ। ভ্রাতৃপ্রেম-ভ্রাতৃঘাত, আনুগত্যতা, সন্তানপ্রেম, দায়িত্বশীলতা, পরিবার, ভালোবাসা, নেতৃত্বদান, প্রতিশোধস্পৃহার এক অনন্য নিদর্শন স্থাপিত হয়েছে সিরিজে। সবচেয়ে ভালোলাগার ব্যাপার যেটা গটকে অনান্য সিরিজ থেকে আলাদা করেছে সেটা হলো সিরিজের শুরু থেকেই নিয়মিতভাবে অনেকগুলো মূল চরিত্রকে মেরে ফেলে আমার মত দর্শকদের মাঝে উদ্বিগ্নতা সৃষ্ট করা।

𝐆 𝐀 𝐌 𝐄 𝐎 𝐅 𝐓 𝐇 𝐑 𝐎 𝐍 𝐄 𝐒

⭐ Imdb rating : 9.2 (1.8 M)
🍅 Rotten Tomatoes : 89%
কিন্তু পরে পরে দেখা যায় কেবল নির্দিষ্ট কিছু চরিত্রকেই ঘিরেই প্লট আর্মর সৃষ্ট হওয়া যেটা সত্যিই অভিনব। নিজ নিজ দৃষ্টিকোণ থেকে অনেকগুলো চরিত্র দেখার সুযোগ করে দিয়েছে এমনকি সেটা ভিলেনের দিক দিয়েও। তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে উচ্চমাত্রার কল্পনা প্রতিফলিত হয়েছে সিরিজে। বলতে গেলে এই সিরিজ যেন সাদাকালো পৃথিবীতে এক ধূসর সুরের পরিচয় ঘটিয়েছে।
⚠ এই অংশে স্পয়লার আছে ⚠
গেম অফ থ্রোনস এ টোটাল সিজন ৮টি আর টোটাল এপিসোড সংখ্যা ৭৩। প্রত্যেকটা এপিসোড তথা সিজন টা টান সাসপেন্স এর মধ্য দিয়ে পার করেছি সাথে প্রতি এপিসোডের শেষে কিছু না কিছু টুইস্ট তো আছেই। তবে সব দিক বিবেচনায় পার্সোনালি ৪ টা এপিসোড অসম্ভব ভালো লেগেছে। ক্রমান্বয়ে নিচে সেগুলো দিয়েছি।

𝗧𝗛𝗘 𝗟𝗔𝗪𝗦 𝗢𝗙 𝗚𝗢𝗗𝗦 𝗔𝗡𝗗 𝗠𝗘𝗡

⭐Imdb : 9.7 | S:4 E:6
রাজা Joffrey’কে হত্যার দায়ে তারই নির্দোষ অাংকেল Tyrion Lannister কাঠগড়ায়। সে জানে সে এখানে সঠিক বিচার পাবে পাবে না। সমস্ত সাক্ষী প্রমাণ তার বিরুদ্ধে। বিচারের এক পর্যায়ে তার বামুন হওয়া নিয়ে পর্যন্ত কথা উঠে এবং সবকিছুর পরে তার সেই কনফেস – ” 𝘐 𝘥𝘦𝘮𝘢𝘯𝘥 𝘢 𝘵𝘳𝘪𝘢𝘭 𝘣𝘺 𝘤𝘰𝘮𝘣𝘢𝘵 ” যেখানে কোনো বিচার নেই, সমস্ত সাক্ষ্যপ্রমাণের মাধ্যমে মৃত্যু নিশ্চিত, সেখান থেকেও কিভাবে বেঁচে থাকার শেষ সুযোগটুকু ছিনিয়ে আনতে হয় তা দেখিয়েছে বামুন Tyrion Lannister।

𝗧𝗛𝗘 𝗦𝗣𝗢𝗜𝗟 𝗢𝗙 𝗧𝗛𝗘 𝗪𝗔𝗥

⭐ Imdb : 9.8 | S:7 E:4
Jamie Lannister VS Daenerys Targaryen aka mother of dragon…
সমগ্র দোত্রাকি আর সাথে তার ড্রোগোন কে নিয়ে ল্যানিস্টার বাহিনীর উপর গোল্ডরোডে হামলা। ড্রোগোন এর ধ্বংসযজ্ঞ দেখে ল্যানিস্টার বাহিনী রীতিমতো যুদ্ধা করার সাহস হারিয়ে ফেলেছিলো। ধ্বংসলীলা শেষ করার ঠিক কিছুক্ষণ আগেই বৃহদাকার X-Bow এর তীর খেয়ে যখন ড্রোগোন মাটিতে নেমে এলো ঠিক তখনই নিজের জীবন বিপন্ন করে Daenerys কে মারার দুঃসাহসিক চেষ্টায় লিপ্ত হতে গিয়েছিলো এক হাত বিহীন Ser Jamie Lannister এবং এপিসোডে এই দৃশ্যটাই ছিলো রোমহষর্ক।
কিন্তু Daenerys কে মারা তো দূরের কথা, ড্রোগোন এর অগ্নিবর্ষণ থেকে সামান্যর জন্যই Bronn এর সাহায্যে নিজের প্রাণ দেয়া থেকে ফিরে আসতে পেরেছিলেন। একজন সত্যিকারের কমান্ডার যে শত ভয়ভীতির মুখেও ময়দান ছেড়ে না গিয়ে সম্মুখযুদ্ধে যেতে পিছপা হন না তারই দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে Jamie Lannister.

𝗧𝗛𝗘 𝗟𝗢𝗡𝗚 𝗡𝗜𝗚𝗛𝗧

⭐ Imdb : 7.4 | S:8 E:3
𝘞𝘩𝘢𝘵 𝘥𝘰𝘦𝘴 𝘵𝘩𝘦 𝘯𝘪𝘨𝘩𝘵 𝘬𝘪𝘯𝘨 𝘸𝘢𝘯𝘵 ?
– 𝘛𝘩𝘦 𝘯𝘪𝘨𝘩𝘵 𝘵𝘩𝘢𝘵 𝘯𝘦𝘷𝘦𝘳 𝘦𝘯𝘥𝘴…
Winterfell এ সেই বহুল প্রতীক্ষিত Army of the dead এর আগমন। বিপরীতে Unsullied, Dothraki বাহিনী, Daenerys এর দুইটা পরিপূর্ণ ড্রাগন, Jon Snow, Ser Jorah, Ser Jamie, Brienne of tarth, Ser Davos, Clegane প্রমুখদের মত বীরেরা। কিন্তু ওই মৃত বাহিনীর সামনে কোনোভাবেই টিকার নয়।
সেই রাত হয়তো আর বেশি দূরে নয় যে রাত Night King চায়। সবাই পরাস্ত। বরাবরের মত সেই Three Eyed Raven তথা Brandon Stark কে মারতে চলে এসেছে night king। Theon বৃথা চেষ্টায়ও আর Brandon কে রক্ষা করা হলো না। এখানেই বুঝি সব শেষ হলো বলে ; কিন্তু না, সব আশা – ভরসা যেখানে শেষ সেখানেই Arya Stark এর আগমন।
Valerian Steel এর সেই ছুরি বসিয়ে দিলো Night King এর মধ্যভাগে। অতঃপর Night king এর সাথে সাথে সমগ্র মৃত বাহিনী শেষ। ওদিকে Ser Jorah নিজের শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ পর্যন্ত যুদ্ধ করতে করতে Daenerys কে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ দিয়ে ভালোবাসার প্রতি আনুগত্যের এক মহৎ দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো। পুরো সময় জুড়ে যেন ঘোরের মধ্যে চলে গিয়েছিলাম। বিজিএমটা এতখানি দুর্দান্ত ছিলো যে আমার শোনা সেরা বিজিএমগুলোর তালিকায় উপরের সারিতে রাখতে বাধ্য হলাম।

𝗕𝗔𝗧𝗧𝗟𝗘 𝗢𝗙 𝗕𝗔𝗦𝗧𝗔𝗥𝗗𝗦

⭐ Imdb : 9.9 | S:6 E:9
Jon Snow আর Ramsey Bolton
দুজনেই বাস্টার্ড সন নামে খ্যাত। সত্যি বলতে Ramsey Bolton ক্যারেক্টার টা পুরো গটের মধ্যে সবচেয়ে ভীতিকর একটা ক্যারেক্টার ছিলো। বেঈমানী করে উইন্টারফেলের লর্ড হওয়ার পর তার পরবর্তী লক্ষ্য ছিলো Snow এর চাপ্টার শেষ করা। আর এতেও সে বরাবরের মত কারও দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে পরাস্ত করার রাস্তা বেছে নিয়েছিলো।
Rinkon কে টোপ বানিয়ে সে Snow কে কাবু করতে চেয়েছিলো। তবে এই এপিসোডে Snow ছিলো একদম অন্য লেভেলে। শুরুতেই সে বুদ্ধিমতার পরিচয় দিয়েছিলো। 1vs1 এ সে Ramsey কে চ্যালেঞ্জ দিয়েছিলো কারণ সে জানত Ramsey কখনো তার সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষে পারবে না। আর Ramsey ও সেটা বুঝে প্রত্যাখান করে দেয়।
অতঃপর উন্টারফেলের ভ্যালিতে সংঘটিত যুদ্ধে সে যে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছে তাতে এটাই প্রমাণ করে যে সে নর্থের রাজা হওয়ার যোগ্য দাবিদার। যদিও Sansa কে ধন্যবাদ দিতে হয় শেষ মুহূর্তে লিটল ফিঙ্গারকে ব্যবহার করে House Arryn বাহিনীকে Snow এর পক্ষে অবতীর্ণ করে যু্দ্ধে Ramsey বাহিনীকে সম্পূর্ণভাবে পরাস্ত করে।

ক্লাইম্যাক্সে খেয়াল করলে দেখবেন

তাছাড়া ক্লাইম্যাক্সে খেয়াল করলে দেখবেন Ramsey বন্ধিখানায় তারই পোষা অভুক্ত কুকুরের কামড়ে যন্ত্রণায় মৃত্যুমুখে ধাবিত হচ্ছিল Sansa সেই দৃশ্য না দেখনে ভেবেও ইচ্ছা করে দেখছিল। নিজের ভার্জিনিটি Ramsey এর মত একটা ব্যাক্তির কাছে হারানোর কষ্ট তারই মৃত্যু পাশে থেকে দেখে পৈশাচিক আনন্দে মেতে উঠেছিলো Sansa Stark. সর্বোপরি চারটি এপিসোডই ছিলো আমার কাছে এক অন্যরকম অভিজ্ঞতা।
টপ লেভেল সিনেমাটোগ্রাফি, ভিজুয়াল রিপ্রেজেন্টেশন, বিজিএম এইসব আনুষঙ্গিক দিক দিয়েও ছিলো ষোলোআনায় পরিপূর্ণ। ক্যারেক্টার প্লেয়িং ছিলো একদম অনবেদ্য। প্রত্যেকেই নিজ নিজ জায়গা থেকে নেইল করে দিয়েছে একদম। তবে দিনশেষে কিছু ক্যারেক্টার ব্যাক্তিগত দৃষ্টিকোণ থেকে অাপনাঅাপনিই প্রিয় হয়ে যায়। আর সেই দিক দিকে গেম অফ থ্রোনস সিরিজে আমার সবচেয়ে প্রিয় ক্যারেক্টার Aegon Targaryen তথা Bastard Jon Snow. এর পরেই থাকবে Arya Stark, Tyrion Lannister, Ser Jorah Marmot, Theon Grejoy প্রমুখরা।
গেম অফ থ্রোনস সিরিজের এন্ডিং নিয়ে দর্শকদের রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। অনেকের কাছেই এক্সপেকটেশন ছিলো অন্যরকম। আবার অনেকে রীতিমতো শেষ দুই সিজনকে গার্বেজ বলে চালিয়ে দেয়। যাইহোক একজন ন্যূনতম দর্শক হিসেবে এতটুকুই বলতে পারি পৃথিবীতে নিখুত কিছুই হয় না।

পূর্বপুরুষদের গতানুগতিক

ব্যক্তিগত ভাবে Brandon এর জায়গায় অন্যকাউকে আশা করেছিলাম তবে সেটা মোটেও Snow নয়। কেননা অাধিপত্যের তুঙ্গে থাকা Daenerys কে কারণ বশত হত্যার পর তার Dothraki,Unsullied বাহিনী যেখানে Snow কে মৃত্যুদন্ড দিতে উদ্যত সেখানে তাকে Iron Throne এ দেখার আশা করা বোকামি। ব্যাক্তিগত ভাবে তাকে তার আগের জায়গায় দেখতে পেয়ে অনেক স্যাটিসফাইড।
Daenerys তার পূর্বপুরুষদের গতানুগতিক Fire & Blood ই দেখিয়েছে যেটা কখনও শান্তির পথ হতে পারে না। শুরু থেকে একরকম থাকলেও শেষে গিয়ে সে অমানবিক প্রতিশোধস্পৃহার লেলিহান শিখায় রীতিমতো উন্মাদ হয়ে গিয়েছেলো যার খেসারত দিতে হয়েছে পুরো শহরকে ধ্বংস হয়ে। এদিক বিবেচনায় সে কখনো Iron Throne এ বসার অধিকার রাখে না। এছাড়াও আরও কিছু এক্সপেকটেশন ফুলফিল হয় নি তবুও বলবো গেম অফ থ্রোনস এমন এক সিরিজ যেখানে ইমোশনের কোনো দাম নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.